যুদ্ধের ভার বহন করার ক্ষমতা নেই যুক্তরাষ্ট্রে: ন্যান্সি পেলোসি

0
15

ইরাকে দুটি মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, আমরা বিষয়টি অত্যন্ত নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি।

তিনি বলেন, এ মুহূর্তে নতুন করে কোনো যুদ্ধের ভার বহন করার মত ক্ষমতা যুক্তরাষ্ট্র এবং বিশ্বের নেই।

ন্যান্সি পেলোসি ইরানকেও সংঘাত বন্ধ করার দাবি জানিয়েছেন। খবর ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমসের।

মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার বলেন, ইরাকে আমাদের সেনা মোতায়েন রয়েছে; আমরা অবশ্যই তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করব এবং অপ্রয়োজনীয় উস্কানির ফাঁদে পা দেব না।

এদিকে, হামলার পর হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র স্টেফানি গ্রিশাম এক বিবৃতিতে বলেছেন, ইরাকে মার্কিন স্থাপনায় হামলার বিষয়টি আমরা জেনেছি। প্রেসিডেন্টকে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়েছে। তিনি পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছেন। জাতীয় নিরাপত্তা দলের সঙ্গে পরামর্শও করছেন প্রেসিডেন্ট।

ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার পর বিবৃতি দিয়েছে। তাতে বলা হয়েছে- ‘বড় শয়তান’, ‘রক্তপিপাসু’ ও ‘দাম্ভিক’ আমেরিকাকে কড়া ভাষায় জবাব দেয়া হয়েছে।

আবার যদি কোনো ‘শয়তানি’ করা হয় কিংবা কোনো আগ্রাসন বা উসকানি চালানোর চেষ্টা করা হয় তাহলে ওয়াশিংটনকে এর চেয়ে ‘বেদনাদায়ক’ জবাব দেয়া হবে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার সকালে বাগদাদে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হন ইরানের শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলাইমানি। ইরানের এই শীর্ষ জেনারেলের গুপ্তহত্যায় ফুঁসে উঠেছে দেশটির জনগণ। গোটা মধ্যপ্রাচ্য এখন টালমাটাল। এই হত্যার বদলা নেয়ার শপথ নিয়েছে ইরান ও লেবাননের হিজবুল্লাহ। পরিপ্রেক্ষিতে ইরাকে দুটি মার্কিট ঘাটিতে হামলা চালায় ইরান।